কুলিয়ারচরে নিজ গৃহ থেকে মাদ্রাসা ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার।

কুলিয়ারচরে নিজ গৃহ থেকে মাদ্রাসা ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার।

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার গোবরিয়া-আব্দুল্লাপুর ইউনিয়নের উত্তর লক্ষীপুর গ্রামের নিজ গৃহে থেকে মাদ্রাসা ছাত্রী মোছাঃ শাপলা বেগম (১৩) নামের এক কিশোরীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে কুলিয়ারচর থানা পুলিশ। জানাযায় আজ ৮ জুন সোমবার ভোরে এই লাশ উদ্ধার করে, কিশোরগঞ্জ মর্গে পেরণ করে কুলিয়ারচর থানা পুলিশ। নিহত শাপলা বেগম মঞ্জিল মিয়া কণ্যা।

কুলিয়ারচর থানার সুত্র থেকে জানাযায়, করোনা ভাইরাসের কারণে মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় শাপলা বেগম বর্তমানে নিজ বাড়ীতে আবস্থান করছিলেন। কোন এক বিষয় নিয়ে পরিবারের সাথে অভিমান করে, নিজ গৃহে উড়না দিযে সিলিং এর সাথে ফাঁস নেয়। এক পর্যায়ে পরিবারের টের পেয়ে ঝুলন্ত অবস্থা থেকে থাকে উদ্ধার করে, ভাগলপুর জহিরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষনা করে। এই খবর পেয়ে কুলিয়ারচর থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানা নিয়ে আসে এবং ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কিশোরগঞ্জ মর্গে প্রেরন করে।

এই বিষয়ে কুলিয়ারচর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল হাই তালুকদার জনান, কিশোরী শাপলা আসলে কী কারণে আত্মহত্যা করেছে নাকি এটা হত্যা তা আমরা এই মুহূর্তে নিশ্চিত করে বলতে পারছি না। লাশ মর্গে পাঠিয়েছি রিপোর্ট এলে সঠিক কারণ জানা যাবে। তবে এই অল্প বয়সের মেয়ে কেন এভাবে আত্মহত্যা করবে, সেটা আমরা অনুসন্ধান করে বের করার চেষ্টা করছি।